রুট ক্যানেল – ক্যাপ করালে কি পাশের দাঁতে সমস্যা হয় ?

রুট ক্যানেল – ক্যাপ করালে কি পাশের দাঁতে সমস্যা হয় ?

দাঁতের চিকিৎসার জন্য যারা আসেন তাদের বেশিরভাগই আমাদের একটি প্রশ্ন করেন।

একটি দাঁতে রুট ক্যানেল ও ক্যাপ করালে পাশের দাঁতে নতুন করে সমস্যা হবার সম্ভাবনা আছে কি?

তাহলে “রুট ক্যানেল করালে পাশের দাঁত আক্রান্ত হয়” এই ধারণার এত বিস্তৃতির কারণ কি?এই লেখায় চেষ্টা করব কমন এই প্রশ্নের উত্তর দিতে। 
প্রথমেই বলা রাখা ভালো যে যদি আপনি দাঁতের চিকিৎসা না করান তাহলে সেই নষ্ট হয়ে যাওয়া দাঁত থেকে পাশের দাঁত আক্রান্ত হবার সমূহ সম্ভাবনা আছে। কিন্তু যদি আপনি চিকিৎসা করান (সেটা হোক রুট ক্যানেল ও ক্যাপ, ফিলিং কিংবা স্কেলিং) সেক্ষেত্রে পাশের দাঁত আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা অনেকখানি কমে যায়। তাই দাঁতের চিকিৎসায় কখনোই অবহেলা করবেন না। এই অবহেলা আপনার ভোগান্তি ,খরচ ,জটিলতা সবই বাড়িয়ে দেবে। 

তাহলে “রুট ক্যানেল করালে পাশের দাঁত আক্রান্ত হয়” এই ধারণার এত বিস্তৃতির কারণ কি?

এর কারণ দুইটি।
প্রথম কারণ হল BDS ডিগ্রি ও রেজিস্ট্রেশন বিহীন অদক্ষ ব্যক্তির হাতে চিকিৎসা করানো। এই রেজিস্ট্রেশনবিহীন অদক্ষ কোয়াক গোষ্ঠী বেশিরভাগ সময় জানে না তারা কি করছে। স্বল্প জ্ঞানে এরা আপনার চিকিৎসায় ভুল করে এবং উপকারের চাইতে ক্ষতি বেশি করে। এজন্য দাঁত ও মুখের যেকোন সমস্যায় শুধুমাত্র বিএমডিসি রেজিস্টার্ড BDS ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। BMDC রেজিস্ট্রেশন চেক করতে পারেন এখানে। 
দ্বিতীয় কারণটি যদিও মেডিকেল ঘরানার, আমি চেষ্টা করছি সহজ ভাষায় ব্যাখ্যা করার। 
স্বাভাবিক অবস্থায় আমাদের দাঁতের মাঝে মাঝে সামান্য একটু ফাঁকা থাকে। নিচের ছবি লক্ষ্য করুন।


এটাকে Interdental Space বলে। দাঁত মাজার সাথে সাথে ডেন্টাল ফ্লস এর সাহায্যে দুই দাঁতের মাঝের এই Interdental space পরিষ্কার করা ভালো এবং আমরা নিয়মিত ফ্লসিং করার পরামর্শ দিয়ে থাকি। যদিও স্বাভাবিক অবস্থায় এই স্পেস নিজে থেকেই কিছুটা পরিষ্কার থাকে কারণ এখানে Self Cleaning Mechanism থাকে। আমাদের নাকে এবং কানেও একই রকম self cleaning mechanism বিদ্যমান । এজন্য অনেকে যারা নিয়মিত ব্রাশ করেন কিন্তু কখনোই ফ্লস দিয়ে দুই দাঁতের মাঝের ফাঁকা অংশ পরিষ্কার করেন না তাদেরও দাঁতে সেভাবে সমস্যা দেখা যায় না।
মুশকিল হয় যখন দাঁতে ক্যারিজ দেখা যায় এবং ফিলিং কিংবা রুট ক্যানেল ও ক্যাপ করা হয় তখন ডাক্তার ও সংশ্লিষ্ট ল্যাব টেকনিশিয়ান চেষ্টা করেন যেন চিকিৎসার পরেও এই Interdental space অক্ষত থাকে এবং self cleaning mechanism কার্যকর থাকে। যদিও বাস্তবে শতভাগ সময়ে সেটা সম্ভব হয় না। এজন্য যদিও সুস্থ ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে ফ্লস একটি অপশনাল বিষয় কিন্তু  বড়ো আকারের ফিলিং কিংবা ক্যাপ করা হলে আমরা পরামর্শ দিই ওই ক্যাপের দুই পাশে অবশ্যই বাধ্যতামূলক ভাবে  নিয়মিত ডেন্টাল ফ্লস দিয়ে পরিষ্কার রাখা। এতে ওই স্থানে খাবার জমে পাশের দাঁতে সমস্যা হবার সম্ভাবনা থাকে না।

আমাদের ক্লিনিকে আমরা নির্বিশেষে সবাইকে ফ্লস ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়ে থাকি। এটি একটি ভালো অভ্যাস এবং দাঁতের ফাঁকে ক্যারিজ প্রতিরোধ করার অন্যতম উপায়।
তাই আপনি দাঁতের কোন চিকিৎসা করান বা না করান, চেষ্টা করুন নিয়মিত ফ্লস করতে। ফ্লস করার পদ্ধতি নিয়ে বিস্তারিত আরেকটি লেখা লেখার চেষ্টা করব। আপাতত ইউটিউবে দেখে নিতে পারেন। সেখানে অনেক ভিডিও আছে ফ্লস করা নিয়ে।

সবাই ভালো থাকুন। নিয়মিত দাঁত ও মুখের যত্ন নিন। করোনা বিষয়ক সকল সাবধানতা মেনে চলুন।