মেসওয়াক নাকি টুথব্রাশ

মেসওয়াক নাকি টুথব্রাশ

“Miswak is a thing that pleases the Merciful Lord.”[Sahih al-Bukhari, Vol. 1, Page 637, Hadith 1933]

“Miswak is a means of the purification of your mouths and the pleasure of your Rabb.” [Sunan Ibn Majah, Page 2495, Hadith 289]

“If I did not feel that it would be difficult upon my Ummah, I would have commanded them to perform miswak with every Wudu.” [Mu’jam al-Awsat, Vol. 1, Page 341, Hadith 1238]

বোঝাই যাচ্ছে ইসলামে মেসওয়াক খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

অনেক মুসলিম ধর্মাবলম্বী নিয়মিত মেসওয়াক করে থাকেন। দাঁতের সমস্যায় পড়লে অনেক মেসওয়াক কারী একটু অবাক হন যে, নিয়মিত মেসওয়াক করার পরও কেন এমন হচ্ছে। অনেককে নিয়মিত ব্রাশ করেন কিনা জিজ্ঞেস করলে তারা হ্যাঁ বলেন, কিন্তু আদতে তারা শুধু মেসওয়াক করেন। এর অধিকাংশ মাদ্রাসার শিক্ষক বা ছাত্র হয়ে থাকেন । প্রশ্ন হল , মেসওয়াক করার পরও কি দাঁতে সমস্যা হতে পারে?
হ্যাঁ , পারে। এটা নিয়েই আমাদের এই লেখা।

ব্রাশ করা আর মেসওয়াক করার মধ্যে আদতে কোন পার্থক্য নেই। দুটিই “mechanical plaque control” পদ্ধতি । মেসওয়াক এর ধর্মীয় গুরুত্ব থাকায় অনেকে এটাকেই বেছে নেন। কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে যে মেসওয়াক এর প্লাক সরানোর মেকানিকাল ইফিশিয়েন্সি কম। এবং মেসওয়াক করলে ব্রাশ করা যাবে না, বা শুধুই মেসওয়াক করতে হবে, বা মেসওয়াক করলে দাঁতের কোন সমস্যা হবে না এমন কথা ইসলামে কোথাও বলা নেই। যখন মেসওয়াক এর পরামর্শ ইসলাম দেয় তখন এটাই ছিল সবচেয়ে ভালো পদ্ধতি। কিন্তু বর্তমানে টুথপেস্ট ও টুথব্রাশের মাধ্যমে দাঁতের কঠিন জায়গা থেকেও প্লাক পরিষ্কার করা যায় যা মেসওয়াক দিয়ে অর্জন করতে গেলে খুব বেশি কষ্টসাধ্য হবে। তৃতীয় হাদীসটি লক্ষ্য করুন, যদি সম্ভব হতো, হজরত মোহাম্মদ (সা:) দিনে পাঁচবার মেসওয়াক করা বাধ্যতামূলক করতেন।

সাধারণত ডেন্টাল সার্জন সবাই মেসওয়াক এর সাথে সাথে অবশ্যই ব্রাশ ও পেস্ট দিয়ে দাঁত মাজার জন্য উৎসাহ দিয়ে থাকেন। এবং এটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে যে আপনি মেসওয়াক এর সাথে সাথে অবশ্যই টুথপেস্ট ও টুথব্রাশ দিয়ে দাঁত মাজবেন।

Leave a Reply